News

ইমো নিয়ে এলো কয়েকটি নতুন ফিচার

ছবি আদান-প্রদানঃ

ছবি আদান প্রদান এর জন্য নতুন ফিচার নিয়ে এসেছে জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপ-ইমো (IMO)।

ইমো জানিয়েছে, তাদের নতুন এ ফিচারটি ব্যবহারকারীদের অভিজ্ঞতাকে আরও উন্নত করবে। গত ১৪ ডিসেম্বর থেকেই এ ফিচারটি সকলের জন্য উম্মুক্ত করা হয়। ইমোর আপডেট ভার্সন এ ফিচারটি উপভোগ করা যাবে।

অতীতে ছবি আদান-প্রদান করা হলে ছবি ফেটে যেত বা রেজুলেশন কমে যেত। তাই প্রযুক্তি নির্ভর এই বর্তমান সময়ে উপযোগী এবং উচ্চ কোয়ালিটি সম্পন্ন ছবি আদান প্রদান করার জন্য ইমো তাদের ছবি আদান প্রদানের ফাংশন আপগ্রেড করেছে। ফলে ছবির রেজুলেশন আর কমবে না।

ইমো এই ফিচারটি লঞ্চ করার আগে ব্যবহারকারীদের থেকে ফিডব্যাক নিয়েছিল। এর ভিত্তিতেই তারা ছবি আদান প্রদান করার জন্য দুটি নতুন অপশন যুক্ত করেছে, একটি হল; হাই ডেফিনিশনের “অরিজিনাল ইমেজ” এবং অপরটি হল মিডিয়াম ডেফিনিশনের “হাই কোয়ালিটি” ইমেজ। আরেকটি অপশন হল ডাটা সেভার। এখন পর্যন্ত ইমো ছবি আদান প্রদানের ক্ষেত্রে এই ৩টি অপশন রেখেছে।

ইমো নিয়ে এলো কয়েকটি নতুন ফিচার
ইমো নিয়ে এলো কয়েকটি নতুন ফিচার

ভয়েস মেসেজিংঃ

অপরদিকে ব্যবহারকারীর সুবিধার্থে ইমো তাদের ভয়েস মেসেজিং ফাংশনটিকে আরো উন্নত করেছে। এখন ভয়েস মেসেজ ওপেনিং এর সময় ব্যবহারকারীরা ম্যানুয়ালি “ইয়ার স্পিকার” মোড বেছে নিতে পারবেন। এই ফিচারটি অন করলে আর সবার সমনে উচ্চস্বরে ভেসে আসা ভয়েস বার্তা শুনতে হবে না আপনাকে।

অর্থাৎ এই ফিচারের মাধ্যমে যারা অন্যদের সামনে জোরে ভয়েস মেসেজ শুনতে চান না তারা সুবিধা পাবেন। এই ফিচারটি ও ইতোমধ্যে ব্যবহারকারীদের জন্য রোল আউট করা হয়েছে।

এছাড়াও ইমোতে ভয়েস মেসেজ পাঠানোর সময় এখন আর মাইক্রোফোন এর বাটনটি চেপে ধরে রাখতে হবে না। এর পরিবর্তে “ক্লিক টু সেন্ড” বাটনে ক্লিক করে ভয়েস রেকর্ড শুরু করতে পারবেন। রেকর্ডিং বন্ধ করতে “ক্লিক টু স্টপ” বাটনে ক্লিক করলেই হবে। তারপর শুধু এটি পাঠিয়ে দিলেই হবে।

প্লে টুগেদারঃ

জনপ্রিয় মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম ইমো বাংলাদেশের ব্যবহারকারীদের জন্য নিয়ে এসেছে নতুন আরেকটি ফিচার “প্লে টুগেদার”। যার ফলে এই লকডাউন এর সময় বন্ধুরা এখন আরো সহজে একে অপরের কাছে আসতে পারবে। প্লে টুগেদারের মাধ্যমে পরিবার বা বন্ধুদের সাথে আড্ডায় মেতে ওঠা যাবে।

এছাড়াও বন্ধুদের সাথে নানা ধরনের একটিভিটিতে অংশগ্রহণ ও করা যাবে। প্লে টুগেদারের মাধ্যমে একটি ভার্চুয়াল রুম তৈরি করা যাবে এবং একাধিক মানুষ সেখানে একসাথে ভিডিও দেখতে পারবে। একজন ইউজার তার ভার্চুয়াল রুমে (সর্বোচ্চ ২০ জন) ইনভাইট করতে পারবে।

এতে করে ইউজার নিজের ডিভাইস থেকে ভিডিও দেখার পাশাপাশি ইউটিউবেও কন্টেন্ট উপভোগ করতে পারবে। এই স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য ইমো ব্যবহারে দিয়েছে নতুন মাত্রা। এই করোনা মহামারির দিনগুলিতে অবসর সময় কাটাতে ইমো অ্যাপের প্লে টুগেদার ফিচারটি হতে পারে অন্যতম মাধ্যম।

সিক্রেট চ্যাটঃ

সূচনালগ্ন থেকেই ব্যবহারকারীদের চাহিদাকে প্রাধান্য দিয়ে এসেছে ইমো। এখন, মেসেজিং জন্য বিভিন্ন উন্নত ফিচার চালুর পাশাপাশি ব্যবহারকারী-বান্ধব অভিজ্ঞতা প্রদানের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

এরই ধারাবাহিকতায় মেসেজিং অ্যাপ ইমোতে যুক্ত হলো ‘সিক্রেট চ্যাট’ নামে নতুন ফিচার। যার মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা চ্যাট থেকে বের হওয়ার সাথে সাথেই মুছে যাবে কথোপকথন। আর এভাবেই ব্যবহারকারীর তথ্যের সুরক্ষা নিশ্চিত করবে ইমো। 

সম্প্রতি ইমো কর্তপক্ষ জানিয়েছে, তাদের এই সিক্রেট চ্যাট ফিচারটি ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্যের গোপনীয়তায় রক্ষা করার পাশাপাশি শক্তিশালী হবে সাইবার নিরাপত্তা। 

এই ফিচারটির একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক হলো ডেসিমিনেশন ফাংশন। অর্থাৎ, চ্যাটের কোন লেখা কপি, ফরওয়ার্ড, শেয়ার বা ডাউনলোড করার সুযোগ থাকবে না। এমনকি করা যাবে না স্ক্রিন ভিডিও। ফলে আরো নিরাপদে একে অন্যের সঙ্গে কথা বলতে পারবেন। 

নতুন এই সিক্রেট চ্যাট ফিচারে প্রয়োজন হবে না ফোন নাম্বার ভেরিফিকেশনের। ফলে ইমো ব্যবহারকারীদের দেবে ভিন্ন এক অভিজ্ঞতা।

মাল্টিপল অ্যাকাউন্ট সাপোর্টঃ

সম্প্রতি ইমো ‘মাল্টিপল অ্যাকাউন্ট সাপোর্ট’ ফিচার নিয়ে এসেছে। এ ফিচারের মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা একটি মোবাইলে স্বাচ্ছন্দ্যে আলাদা আলাদা ইমো অ্যাকাউন্ট চালাতে পারবেন

এই সুবিধাটি বাংলাদেশি ব্যবহারকারীদের জন্য বিশেষভাবে উম্মুক্ত করা হয়েছে। মাল্টিপল অ্যাকাউন্ট সাপোর্ট’ সুবিধার ফলে ব্যবহারকারীরা এখন একই ডিভাইসে সর্বোচ্চ পাঁচটি আলাদা অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করতে পারবে। সেটিং পেজে গেলেই আপনি সদ্য যুক্ত হওয়া এই ফিচারটি দেখতে পারবেন। ‘সুইচ অ্যাকাউন্ট’ অপশনে ক্লিক করে এই ফিচারটি ব্যাবহার করতে পারবেন। নতুন অ্যাকাউন্ট সংযুক্তির করার পর ব্যবহারকারীরা কোনো প্রকার রিস্টার্ট বা পুনরায় লগ-ইনের ঝামেলা করা লাগবে না। তবে এ ক্ষেত্রে, নতুন অ্যাকাউন্ট যোগ করার সময় অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তা নিশ্চিতে মোবাইলের ওটিপি ভেরিফিকেশনের প্রয়োজন হবে।

Leave a Reply

Back to top button