News

নেটফ্লিক্স প্রথমবারের মতো স্মার্টফোন গেম এনেছে

নেটফ্লিক্স প্রথমবারের মতো স্মার্টফোন গেম বাজারে লঞ্চ করলো। এরই মধ্যে গেমগুলো অনেক জনপ্রিয়তা ও পেয়েছে। গেমগুলো হচ্ছেঃ স্ট্রেঞ্জার থিংস : ১৯৮৪, স্ট্রেঞ্জার থিংস ৩ : দ্য গেম, কার্ড ব্লাস্ট, টিটার আপ, এবং শুটিং হুপস।

নেটফ্লিক্স অ্যাপ এ গেমগুলো পাওয়া যাবে। আপনারা চাইলে সেখান থেকেই ডাউনলোড করতে পারেন। নেটফ্লিক্স একটি বিবৃতিতে বলে, তাদের গেমগুলো গেমারদের ভিন্ন এক অভিজ্ঞতা প্রদান করবে এবং গেমগুলো অন্যসব গেম থেকে আলাদা হবে। গেমের ভিতর দেখাবে না কোনো অ্যাড। অর্থাৎ বিজ্ঞাপন ছাড়াই চলবে গেমগুলো। কোনো প্রকার সাবস্ক্রিপশন ফি ও নেই। শুধু নেটফ্লিক্স সদস্যপদ হলেই এই গেম খেলা যাবে।

বিবিসির একটি সুত্রে জানা গেছে, গেমগুলো শুধু অ্যান্ড্রয়েড ও ট্যাবলেটের জন্য আনা হয়েছে। অবশ্য কয়েক মাসের মধ্যে অ্যাপলের আইওএস ডিভাইসেও পাওয়া যাবে। কিন্তু এই গেমগুলো খেলা যাবে না কোন কম্পিউটারে।

বিশ্বব্যাপী ভিডিও স্ট্রিমিং বাজারের প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতেই প্রথমবারের মতো স্মার্টফোন গেম নিয়ে এলো স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্স।

অন্যান্য গেমের তুলনায় এই গেমগুলোতে সাধারণ গ্রাফিক্স এবং গেমপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে। আপাতত উন্নত গ্রাফিক্স এবং গেমপ্লে ব্যবহারের কথা চিন্তা করছেন না তারা। তবে ভবিষ্যতে সব ধরনের গেমারদের জন্য গেম তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে নেটফ্লিক্সের।

নেটফ্লিক্সের গেম ডেভেলপমেন্টের প্রধান পরিচালক মাইক ভার্ডু এক সময়ের জনপ্রিয় গেমস নির্মাতা ”EA” এবং ফেসবুকের ভার্চুয়াল রিয়েলিটি নিয়ে কাজ করেছেন।

মাইক ভার্ডু বলেন, তিনি গেমের একটি বিশাল সংগ্রহশালা গড়ে তুলতে চান নেটফ্লিক্সের মাদ্ধমে, যা প্রত্যেকের জন্য ভালো অভিজ্ঞতা নিয়ে আসবে। আপাতত অ্যান্ড্রয়েড ফোন ও ট্যাবলেট এর জন্য গেমগুলো বানানো হয়েছে। কয়েক মাসের মধ্যেই আইফোনেও এই গেমগুলো চলে আসবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

অনেকদিন আগে থেকেই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল যে নেটফ্লিক্সে গেমিং সেবা নিয়ে আসবে। অবশেষে সেই জল্পনা-কল্পনার অবসান হলো। নেটফ্লিক্স অ্যাপটি ‘আপডেটেড’ দিলেই গেমগুলো ডাউনলোডের সুযোগ পাবেন ব্যবহারকারী। জানা গেছে, শুরুতে শুরুতে মাত্র পাঁচটি গেম তারা যোগ করছে নেটফ্লিক্সে। পরবর্তীতে আরো গেম বাজারে ছাড়া হবে।

মূলত গেমের মধ্যে বিজ্ঞাপন না আসা এবং গেমের অভ্যন্তরীণ লেনদেনের কোনো সুযোগ না রাখা এই দুইটি জিনিসই গেমগুলোর মধ্যে পার্থক্য গড়ে দিয়েছে। গেমিং সেবার এই দুটি বৈশিষ্ট্যের ওপর জোর দিচ্ছে নেটফ্লিক্স। যদিও প্রায় সব মোবাইল গেমের ক্ষেত্রেই এ দুটি বৈশিষ্ট্যের উপস্থিতি অনিবার্য।

করোনা মহামারির প্রভাবে বদলে গেছে প্রযুক্তি ব্যবহারের ধরন। নেটফ্লিক্স, অনলাইন কোর্স, জুমের দাপট দেখেছে বিশ্ব। ২০২১ সালেও সেই ধারা অব্যাহত ছিল।

আপনি জানেন কি?

  • নেটফ্লিক্সের গ্রাহকসংখ্যা ২১ কোটি ৪০ লাখ।
  • ১৯৯৮ সালে নেটফ্লিক্সের যাত্রা শুরু হয়।
  • তাদের প্রথম সিরিজ হলো আমেরিকান পলিটিক্যাল ড্রামা ‘হাউস অব কার্ডস’।
  • নেটফ্লিক্স বর্তমানে ১৯০টি দেশে দেখা যায়।
  • ২০২১ সালে নেটফ্লিক্সের সবচেয়ে সফল ছিল দক্ষিণ কোরিয়ার সিরিজ ‘স্কুইড গেম’।
  • প্রথম মাসেই এই সিরিজটি দেখেন ১৪ কোটি ২০ লাখ গ্রাহক।
  • সিরিজটি বানাতে খরচ হয় ১৬৮ কোটি টাকা। আর মুনাফা হয় ৭ হাজার ২০০ কোটি টাকা। 

যারা গেম খেলতে পছন্দ করেন তারা নেটফ্লিক্সের এই গেমগুলো খেলে দেখতে পারেন। গেম ডেভেলপমেন্টের প্রধান বলেন, “আপনি এর আগে গেম খেলেন কিংবা একেবারে নতুন গেম খেলা কেউ হন তাতে কোন সমস্যাই নেই। আমরা শুরু থেকেই এমন গেমের প্রতি নজর রাখছি যা সব ধরনের গেমপ্রিয় মানুষদের জন্যই প্রিয় হবে।”

সম্প্রতি নেটফ্লিক্সের জনপ্রিয় সিরিজ ‘স্কুইড গেমস‘ নেটফ্লিক্সকে গেমের জগতে প্রবেশ করতে আগ্রহী করে তুলছে বলে মনে করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Back to top button