মোবাইল রুট করার পদ্ধতি

মোবাইল রুট করার পদ্ধতি জানুন

আগে এন্ড্রয়েড ফোন রুট করা অনেক কঠিন একটা ব্যাপার ছিল কিন্তু এখন রুট করাটা অনেক সহজ ব্যাপার হয়ে গেছে। আজকের এই পোষ্টে আমি দেখাবো কিভাবে আপনি আপনার মোবাইলটি রুট করতে পারবেন। যাদের কম্পিউটার আছে তারা অবশ্যই কম্পিউটার এর মাধ্যমে রুট করবেন। কারণ কম্পিউটার এর মাধ্যমে রুট করা সবচেয়ে সহজ এবং নিরাপদ।

এন্ড্রয়েড ফোন রুট করার আগে কি করতে হয়?

এন্ড্রয়েড মোবাইলটি রুট করার আগে কিছু প্রস্তুতি নিতে হয়। তা না হলে ফোন রুট হবে না। কাজেই মোবাইল হুটহাটভাবে রুট করার আগে নিচের পদক্ষেপ গুলো অনুসরণ করুন।

  • মোবাইল রুট করার আগে মিনিমাম ৫০% চার্জ দিয়ে নিবেন।
  • কম্পিউটার দিয়ে রুট করার ক্ষেত্রে মোবাইলের সাথে থাকা অরিজিনাল ডাটা ক্যাবল ব্যবহার করবেন।
  • কম্পিউটারের USB Port ঠিক আছে কি না তা যাচাই করে নিবেন।
  • আপনার মোবাইলের ড্রাইভার অবশ্যই ডাউনলোড করে পিসিতে ইনস্টল করে নিবেন।
  • ফোন মেমোরিতে থাকা প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস SD carrd এ রাখলে ভালো হবে।

এন্ড্রয়েড ফোন রুট করার সুবিধা কি?

  • মোবাইলের স্পিড ও পারফরমেন্স বৃদ্ধি পায়।
  • মোবাইলের সাথে থাকা এ্যাপসগুলোকে সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ করা যায়।
  • প্রসেসর এর গতি বাড়ানো যায়।
  • অপ্রয়োজনীয় এ্যাপস বন্ধ রেখে ব্যাটারি ব্যাকআপ বাড়ানো সম্ভব হয়।
  • বিভিন্ন ধরনের কাস্টম মডিউল ব্যবহার করে ফোনকে ইচ্ছামত ডিজাইন করা যায়।
  • মোবাইলে পছন্দমত ফন্ট ইনস্টল করা যায়।

এন্ড্রয়েড ফোন রুট করার অসুবিধা কি কি?

  • ফোন রুট করলে ওয়ারেন্টি থাকবে না।
  • ফোন রুট করলে মোবাইল ব্রিক করতে পারে। ব্রিক মানে কাজ করার ক্ষমতা হারাতে পারে। অবশ্য এ ক্ষেত্রে ফ্লাশ করলে আবার ঠিক হয়ে যাবে।
  • রুট করার পর আপনার মোবাইলের অপারেটিং সিস্টেম আপডেট পাবেন না।
  • মোবাইলে ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হবে।
  • সঠিকভাবে রুট না করলে রুট করার সময়ই ফোন নস্ট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

মোবাইল রুট করার নিয়ম কম্পিউটার ছাড়া

আগে যখন কেউ রুট করার কথা ভাবতো তখন কম্পিউটার এর প্রয়োজন হতো। কিন্ত বর্তমানে আপনি রুট করার জন্য এমন অনেক ধরনের rooting apps পেয়ে যাবেন যার মাধ্যমে ৫ মিনিটের মধ্যে নিজের এন্ড্রয়েড ডিভাইসটিকে নিরাপদে রুট করে নিতে পারবেন।

এই মাধ্যম গুলো হলো এন্ড্রয়েড মোবাইল সহজে রুট করার সেরা উপায়। mobile root করার এই অ্যাপস গুলো আপনারা google play store থেকে বা গুগল সার্চ করে সহজে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

আমি আজকে আপনাদের এমন ৩ টি মোবাইল রুট করার অ্যাপের বিষয়ে বলবো যার মাধ্যমে সহজে Android mobile root করতে পারবেন। এর জন্য প্রথমে এপস গুলো মোবাইলে ডাউনলোড করে ইনস্টল করুন এবং নিচের স্টেপ গুলো ফলো (follow) করুন।

মোবাইল রুট করার পদ্ধতি

মোবাইল রুট করার জন্য কম্পিউটার এর তুলনা হয় না। কিন্তু অনেকের হয়তো কম্পিউটার নাও থাকতে পারে। তাই সবার কথা বিবেচনা করে আমি কয়েকটি রুট করার সফটওয়্যার নিয়ে আলোচনা করবো যেগুলো দিয়ে আপনি সহজেই আপনার ফোন রুট করে নিতে পারবেন।

১. king root

king root android application যেকোনো এন্ড্রয়েড মোবাইল রুট করার সব চেয়ে সেরা অ্যাপ্লিকেশন হিসাবে প্রমাণীত হয়েছে। king root অ্যাপটি মোবাইলের রুটিং প্রসেস অনেক সহজে সম্পন্ন করে।

মোবাইল রুট করার যত গুলো এপস রয়েছে তার মধ্যে সব চেয়ে বেশি ব্যবহার করা হয় এই অ্যাপটি। এই অ্যাপ্লিকেশন google play store থেকে সহজে ডাউনলোড করতে পারবেন। এবং এটার মাধ্যমে কম্পিউটার ছাড়া নিজের মোবাইল কে রুট করে নিতে পারবেন।

২. SuperSU – one click root

SuperSU মোবাইল রুটিং অ্যাপ ডাউনলোড করতে গুগলে সার্চ করুন। তাই আপনি যদি রুট করার কথা ভাবেন, কিভাবে মোবাইল রুট করবো তাহালে এই SuperSU app ব্যবহার করে দেখুন।

৩. FamaRoot

Fama root app এর মাধ্যমে আপনি মাত্র একটি ক্লিকের মাধ্যমে এন্ড্রয়েড ফোন রুট করতে পারবেন। এই অ্যাপটি আপনি google play stare  থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন না। তবে, গুগলে সার্চ করে আপনি অনেক রকমের ওয়েবসাইট থেকে FamaRoot app download করতে পারবেন। এন্ড্রয়েড ফোন রুট করার জন্য এই অ্যাপটি আপনার অবশ্যই কাজে আসবে ।

Leave a Reply