Guides & Tips

মোবাইল দিয়ে ইউটিউব চ্যানেল খোলা

মোবাইল দিয়ে ইউটিউব চ্যানেল কীভাবে খুলতে হয়?

আপনি যদি মোবাইল দিয়েই একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলতে চান তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্য। এই পোস্টে আমি জানাবো কিভাবে আপনি মোবাইল দিয়ে খুব সহজেই একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলতে পারেন।

উল্লেখ্য যে বর্তমানে ইউটিউব চ্যানেল থেকে অনেকেই তাদের চ্যানেল মনিটাইজ করে অনলাইন ইনকাম করছে। আপনি ও যদি ইউটিউব চ্যানেল খুলে ইনকাম করতে চান তাহলে এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করার জন্য আপনার নিচের জিনিসগুলো প্রয়োজন।

  • একটি জিমেইল আইডি।
  • মোবাইল, কম্পিউটার বা ল্যাবটব।
  • চ্যানেলের জন্য সুন্দর নাম।
  • ইউটিউব আর্ট বা কভার ফটো।

চ্যানেলের জন্য কেমন নাম রাখবেন

ইউটিউব চ্যানেলের নাম সবসময় ইউনিক রাখার চেষ্টা করবেন। আরেকজনের ইউটিউব চ্যানেল এর নাম কপি করা মোটেও উচিৎ নয়। তাই অবশ্যই চ্যানেলের নাম ইউনিক হতে হবে এবং যেন এটি সবার পছন্দ হয় এবং মনেও থাকে। ইউটিউব চ্যানেলের নাম সুন্দর রাখতে নিচে কিছু টিপস দেয়া হলোঃ

  1. সকলের থেকে একেবারে আলাদা নাম রাখুন এবং এমন নাম যেই নামে ইউটিউবে দ্বিতীয় কোন চ্যানেল নেই।
  2. এমন নাম রাখুন যেটি সহজেই মনে রাখা যায়।
  3.  এমন একটি নাম রাখবেন যেই নামের সাথে আপনার ভিডিও category এর মিল আছে।
  4.  ছোট শব্দের চ্যানেল নাম রাখুন।
  5. এমন নাম রাখুন যেই নাম অন্য কোন সোশ্যাল মিডিয়ায় তেও নেই।
  6. এমন নাম রাখুন যেই নামের ডোমেইন নেইম যেনো available থাকে।

মোবাইল দিয়ে ইউটিউব চ্যানেল কিভাবে তৈরি করবো

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলতে হয় জানতে হলে নিচের স্টেপ ফলো করুন। এখানে আমরা আপনাদের সাথে শেয়ার করেছি ইউটিউব চ্যানেল খোলার সহজ উপায় আপনি মনে করলে মোবাইল দিয়েও ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে পারেন।

ইউটিউব সাইটে যান

প্রথমে আপনার মোবাইল এর Chorme ব্যাবহার করে  youtube.com সাইটে যান। এরপর ওপরে sign in বাটনে ক্লিক করুন।

জিমেইল দিয়ে লগইন করুণ

এবার আপনার জিমেইল একাউন্টটি ব্যাবহার করে লগইন করুন।

Your Chanel এ ক্লিক করুন

লগইন হওয়ার পর ওপরে ডানদিকে আপনার প্রোফাইল আইকন দেখতে পাবেন। এখানে ক্লিক করে “your channel” অথবা “create a channel” ক্লিক করুন।

চ্যানেল এর নাম সিলেক্ট করুন

create a channel এ ক্লিক করার পর দুটো অপশন আসবে। যদি আপনার জিমেইল আইডির নাম দিয়ে ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে চান তাহলে use your name ক্লিক করুন। আর যদি নতুন নাম রাখতে চান তাহলে custom name এ ক্লিক করুণ।

ক্রিয়েট ইউটিউব চ্যানেল

এবার আপনার ইউটিউব চ্যানেলের নাম দিয়ে create এ ক্লিক করুণ।

ইউটিউব চ্যানেল সেটিংস

আপনার চ্যানেল তৈরী করা হয়ে গিয়েছে। এবার আপনার কিছু কাস্টমাইজেশন করতে হবে।

Customize Channel – এখানে ক্লিক করে আপনার চ্যানেলের প্রোফাইল পিকচার, “YouTube art” বা কভার ফটো, about, description ইত্যাদি সেটিং করে নিতে হবে। মনে রাখবেন ইউটিউব কভার ফটো সাইজ 2560*1440 pixels তাই আপনি ঠিক এই রেজুলেশনের ছবি কভার ফটো হিসেবে আপলোড করবেন।

YouTube Studio – এখান থেকে আপনি আপনার ভিডিও আপলোড, লাইভ ভিডিও, চ্যানেল এনালাইসিস ইত্যাদি দেখতে পারবেন।

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল ভেরিফাই করবেন

আপনি যদি ইউটিউব থেকে আয় করতে চান তাহলে আপনার চ্যানেলকে অবশ্যই ভেরিফাই করে নিতে হবে। ইউটিউব চ্যানেল ভেরিফাই করতে নিচের স্টেপগুলো ফলো করুন।

  1. প্রথমে আপনার চ্যানেল এ প্রবেশ করুন।
  2. settings এ ক্লিক করুণ।
  3. view additional features এ ক্লিক করুণ।
  4. এবার verify অপশনে ক্লিক করুন।
  5. নতুন পেজে country সিলেক্ট করুন আর আপনার মোবাইল নাম্বার দিন।
  6. আপনার নাম্বারে যেই otp গেছে সেটা দিন।
  7. তাহলেই আপনার YouTube চ্যানেল ভেরিফাই হয়ে যাবে।

মোবাইল দিয়ে ইউটিউবে ভিডিও আপলোড

মোবাইল দিয়ে ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করতে চাইলে নিচের স্টেপ ফলো করুন। মনে রাখবেন শুধুমাত্র নিজের করা ভিডিওটি আপনি আপলোড করবেন। ডাউনলোড করা ভিডিও দিলে কপিরাইট ক্লেইম এসে আপনার চ্যানেল ডিজেবল হয়ে যাবে।

  1. প্রথমে আপনার চ্যানেলে প্রবেশ করুন।
  2. ওপর থেকে আপলোড এর আইকনে ক্লিক করুন।
  3. এবার মোবাইল গ্যালারি থেকে ভিডিও সিলেক্ট করুন।
  4. আপলোড এ ক্লিক করুন।
  5. আপলোড হয়ে গেলে ভিডিওর Title, Description ইত্যাদি দিয়ে ভিডিও পাবলিশ করে দিন।

ইউটিউব থেকে আয় করতে হলে আপনার কাছে অবশ্যই একটা ইউটিউব চ্যানেল থাকতে হবে এবং নিয়মিত কোয়ালিটি কন্টেন্ট দিতে হবে। মোবাইল দিয়ে ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে আপনার কোন সমস্যা হলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন আর এই পোস্টটি ভাল লাগলে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে দিবেন।

Leave a Reply

Back to top button