Realme

Realme Narzo 50

একটি ফোনের পারফরম্যান্স কেমন হবে, তা নির্ভর করে ফোনটির প্রসেসর বা চিপসেট এর উপর। ইন্টারনেট ব্রাউজিং, মুভি দেখা, গেম খেলা ও একসঙ্গে একাধিক অ্যাপ চালানো সবকিছুই মূলত নির্ভর করে মোবাইলের প্রসেসরের ওপর। প্রসেসর যত ভালো হবে, স্মার্টফোন চালানোর অভিজ্ঞতাও তত অসাধারণ হবে।

এর সঙ্গে যদি হাই রিফ্রেশ রেট ও বিশাল ডিসপ্লে থাকে, তাহলে তো আর কোনো কথাই নেই। এ বিষয়টি মাথায় রেখে শক্তিশালী প্রসেসর, অসাধারণ ডিসপ্লে ও চমকপ্রদ প্রযুক্তি সহ নানা ফিচারস নিয়ে রিয়েলমি বাজারে নিয়ে এসেছে রিয়েলমি নারজো ৫০।

গতকাল অর্থাৎ এপ্রিল ৩, ২০২২ তারিখে দেশের বাজারে আসা দুর্দান্ত এই নারজো ৫০-এ রয়েছে সেরা মানের প্রসেসর ও হাই কোয়ালিটি ডিসপ্লে। এই বাজারদরে এটাই একমাত্র ফোন, যেটিতে রয়েছে Hellio G96 প্রসেসর ও ১২০ গিগা হার্জ full hd plus display। এটি বর্তমানে অন্যতম সেরা গেমিং ফোন।

এই ফোনটিতে রয়েছে শক্তিশালী প্রসেসর Hellio G96 যা আগের তুলনায় ৪২ শতাংশ উন্নত পারফরম্যান্স প্রদান করবে। এটি ২.০৫ গিগাহার্টজ ক্লক স্পিডে দুইটি কর্টেক্স-এ৭৬ কোর ও ছয়টি কর্টেক্স-এ৫৫ কোরের সঙ্গে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স প্রদান করবে। এখন পর্যন্ত হেলিও জি৯৬ এই প্রাইস পয়েন্টে একমাত্র প্রসেসর, যা ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট ডিসপ্লে সাপোর্ট করে।

শক্তিশালী প্রসেসর আর ক্লক স্পিড বেশি হলে অধিক ব্যবহারে ও স্মার্টফোন দেয় বাটার স্মুথ পারফরম্যান্স। এমন দুর্দান্ত প্রসেসরের সঙ্গে রিয়েলমি নারজো ৫০ নিরবচ্ছিন্ন স্মার্টফোন অভিজ্ঞতা প্রদান করে। পারফরম্যান্স ও গেমিংয়ের জন্য ফোনটি আরও স্বাচ্ছন্দ্যে ব্যবহার করা যাবে।

শুধুমাত্র গেমারদের জন্য রিয়েলমি নারজো ৫০ একটি গেম মোড নিয়ে এসেছে, যেখানে গেমাররা সেরা গেমিং অভিজ্ঞতা পেতে তাঁদের প্রয়োজন অনুযায়ী ভিন্ন ভিন্ন পারফরম্যান্স মোড ও নোটিফিকেশন স্টাইল বেছে নিতে পারবেন। এছাড়া, সারা বিশ্বের তরুণ গেমারদের জন্য সবচেয়ে স্মুথ ডিসপ্লে এখন রিয়েলমি নারজো ৫০ এর মধ্যে।

এতে আছে ১২০ গিগা হার্জ রিফ্রেশ রেট এবং ৬.৬ ইঞ্চির বিশাল ডিসপ্লে, যা এই সেগমেন্টে সর্বোচ্চ রিফ্রেশ রেটের ডিসপ্লে। অসাধারণ অভিজ্ঞতার জন্য এই আল্ট্রা-স্মুথ ডিসপ্লে অ্যানিমেশন, স্ক্রলিং ও গেমের অভিজ্ঞতা অসাধারণ করে তুলবে।

ব্যাটারি সেভিংয়ের জন্য নারজো ৫০, ছয় স্তরের রিফ্রেশ রেট অ্যাডজাস্টমেন্ট সাপোর্ট করে। এ ছাড়া, ৯০.৮ শতাংশ screen to body ratio এর সঙ্গে ২৪১২×১০৮০ FHD+ ডিসপ্লে স্পষ্ট ও ঝকঝকে বিশাল স্ক্রিনে আরও ভালো সিনেম্যাটিক ভিউইয়িং অভিজ্ঞতা প্রদান করবে।

যাঁরা মুভি বা ভিডিও দেখতে পছন্দ করেন, এই স্ক্রিন নিশ্চিতভাবে তাদের মুগ্ধ করবে। ফোনটিতে ৫,০০০ এমএএইচ বিশাল ব্যাটারি রয়েছে, যা ১২ ঘণ্টাব্যাপী নিরবচ্ছিন্ন ব্যবহার এবং গেমিং নিশ্চিত করবে। ফোনের চার্জ শেষ হয়ে গেলে এর ৩৩ ওয়াটের ডার্ট চার্জারের সাহায্যে ব্যবহারকারী মাত্র ১ ঘণ্টা ১০ মিনিটে ফোনটিকে ১০০% পর্যন্ত চার্জ করতে পারবেন। ফোনটির ব্যাটারি ব্যাকআপ নিয়ে কিছু বলার নেই কারণ এটি সত্যিই অসাধারণ।

নিখুঁত ছবি তোলার জন্য রিয়েলমি নারজো ৫০–তে রয়েছে ৫০ মেগাপিক্সেলের Ai triple camera সেটআপ। ঝকঝকে ও উজ্জ্বল ছবির জন্য ৫০ মেগাপিক্সেলের (এফ/১.৮) মেইন ক্যামেরায় বিশাল অ্যাপারচার এবং দূর থেকে পরিষ্কার ছবি তুলতে ৪এক্স ম্যাক্স ডিজিটাল জুম রয়েছে।

কেভলার স্পিড টেক্সচার ডিজাইনের নারজো ৫০ দেখতে রেসিং কারের টেক্সচারের মতো, যা শক্তিশালী পারফরম্যান্সের অনুভূতি দিবে। ফোনটির ডিজাইন তরুণদের জন্য ট্রেন্ডি। যারা কম মূল্যে ভালো স্পেসিফিকেশনযুক্ত একটি ফোন কিনতে চাচ্ছেন, তাঁদের জন্য আকর্ষণীয় ফিচারের রিয়েলমি নারজো ৫০ একেবারে অসাধারণ একটি ফোন হতে যাচ্ছে।

এই ফোনটিতে রয়েছে ৪ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজ। ফোনটির দাম ধরা হয়েছে মাত্র ১৬ হাজার ৪৯৯ টাকা। ফোনটি স্পিড ব্লু ও স্পিড ব্ল্যাক দুটি ভিন্ন রঙে পাওয়া যাবে। গেমপ্রেমীদের জন্য এই ফোনটি এবারের ঈদের সবচেয়ে সেরা উপহার।

Leave a Reply

Check Also
Close
Back to top button