UncategorizedGuides & Tips

সেকেন্ড হ্যান্ড মোবাইল কোথায় পাওয়া যায়

সাধ্যের মধ্যে ভালো মোবাইল কিনতে আমরা অনেকেই সেকেন্ড হ্যান্ড মোবাইল ক্রয় করে থাকি। কিন্তু বেশীর ভাগ ক্ষেত্রেই এই মোবাইল কিনে মানুষ প্রতারিত হয়। কিন্তু এখন এই সেকেন্ড হ্যান্ড ফোনের বাজার অনেক বড় হওয়ায় এখন তা শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত মার্কেটে ও বিক্রি হচ্ছে। যা দামেও কম আবার মানে ও ভালো।

বিভিন্ন সেকেন্ড হ্যান্ড মোবাইলের মার্কেট ঘুরে দেখা গেছে, সেকেন্ড হ্যান্ড মোবাইলের সবচেয়ে বড় মার্কেট হলো বায়তুল মোকাররম/স্টেডিয়াম মার্কেট। এরপর আছে ইস্টার্ন প্লাজা, মেট্রো শপিং মল এবং মোতালিব প্লাজা। এই মার্কেট গুলো সেকেন্ড হ্যান্ড মোবাইলের জন্য বিখ্যাত এবং একটু ঘুরলে ভালো মোবাইল পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এরপর আছে গুলিস্তান আন্ডারপাসের নিচের মোবাইল মার্কেট। এটা শুধুই মোবাইল আর মোবাইল এক্সেসরিজ মার্কেট। এখানে বিভিন্ন মডেলের মোবাইল ও এক্সেসরিজ পাবেন। কিন্তু অনেকেই আবার গুলিস্তান থেকে কিনতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন না। গুলিস্তান থেকে কিনতে না চাইলে মোতালিব প্লাজা যেতে পারেন। সেখানেও ভালো সেকেন্ড হ্যান্ড মোবাইল পেয়ে যাবেন।

সেকেন্ড হ্যান্ড মোবাইলে কিনার আগে নিচের বিষয়গুলি খুব গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করবেন।

  1. সেকেন্ড হ্যান্ড মোবাইল কেনার আগে মোবাইলটি সঠিকভাবে পরীক্ষা করে দেখুন।
  2. টাচস্ক্রিনটি ঠিক মতো কাজ করছে কি না দেখে নিন।
  3. পুরানো ফোন কেনার সময় কিছু সতর্কতা অবলম্বন করুন যেন আপনি না ঠকে যান।

পুরনো ফোন কেনায় কোনও অসুবিধা নেই তবে, পুরানো ফোন কেনার সময় কিছু সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত, না হলে পরে আফসোস করতে হবে। তাহলে আসুন বিস্তারিত ভাবে জেনে নেওয়া যাক সেকেন্ড হ্যান্ড স্মার্টফোন কেনার সময় আপনার কোন-কোন জিনিসগুলি মনে রাখতে হবে।

ফোনের ফিজিকাল কান্ডিশান খেয়াল করবেন

সেকেন্ড হ্যান্ড স্মার্টফোন কেনার আগে ডিভাইসটি ভালোভাবে পরীক্ষা করে দেখুন যে কোনও ফিজিকাল ড্যামেজ আছে কিনা। অনেক সময় ফোন হাত থেকে পড়ে দাগ কেটে যায় এবং ফোনের ইন্টারনাল পার্টস যেমন স্পিকার বা মাইক্রোফোনও ক্ষতি হতে পারে। তাই আগে ভালোভাবে দেখুন কোনো স্ক্রেচ পড়েছে কিনা বা পড়লেও এটি কিভাবে হলো তা জানুন।

ফোন কেনার রশিদ দেখা

যতটা গুরুত্বপূর্ণ ফোন পরীক্ষা করা, ততটাই গুরুত্বপূর্ণ ফোনের সাথে বিলটি দেখে নেওয়া। ফোনটি চুরির কি না, তা দেখতেই বিলের কাগজ চাইবেন। বিল থাকলে গ্যারান্টি পিরিয়ডের মধ্যে আপনি স্মার্টফোনটি বদলে ও নিতে পারবেন। আর ফোনটি চোরাই কি না, সেই ভেরিফিকেশনের জন্য IMEI নাম্বার জানা জরুরি। তাই আপনাকে অবশ্যই বাক্সে উপস্থিত IMEI নম্বর মিলাতে হবে, এর জন্য ফোনে ডায়াল করুন *#06# নাম্বারে, এমন করার পর আপনার ফোনের স্ক্রিনে IMEI নম্বর দেখতে পারবেন। যদি ওয়্যারেন্টি না ছেড়ে যায়, তবুও ফোনের বিলটি নিন।

টাচস্ক্রিন পরীক্ষা করে দেখে নিন

স্মার্টফোন কেনার সময়, টাচস্ক্রিনটি ভাআলোভাবে কাজ করছে কিনা তা দেখে নিন। এমন ও সম্ভাবনা আছে যে মোবাইল দেখতে নতুন লাগতেছে কিন্তু টাচস্ক্রিন নষ্ট হতে পারে। স্ক্রিনের প্রতিটি অংশে আঙ্গুল দিয়ে সোয়াইপ করার চেষ্টা করুন, কীবোর্ডটি খুলুন এবং সমস্ত কী টাইপ করে পরীক্ষা করে দেখুন।

ফোনের পার্ট্স দেখাও দরকার

ফোনের ফিজিকাল ড্যামেজ পরীক্ষা করার সাথে সাথে ফোনের সমস্ত আউটপুট পার্ট্স ঠিক আছে কিনা দেখুন। ফোন কিনতে যাওয়ার সময় সাথে করে হেডফোন নিয়ে যান, যাতে আপনি ফোনের অডিও আউটপুট পরীক্ষা করতে পারেন, ফোনটি চার্জ দিয়ে দেখবেন যে চার্জিং পোর্ট কাজ করছে কিনা।

ক্যামেরা চেক করে নিন

স্মার্টফোন চেক করার সময়, ক্যামেরার সমস্ত লেন্স, সমস্ত ফাংশন সঠিকভাবে কাজ করছে কিনা তা পরীক্ষা করে দেখুন। এগুলি ছাড়াও, ক্যামেরার লেন্সে কোনো স্ক্র্যাচ পড়্রেছে কিনা এ বিষয়টিও খেয়াল করবেন।

Leave a Reply

Back to top button