Software & Apps

WHATSAPP ACCOUNT ব্যান হতে পারে এই ৭ নিয়ম না মানলে

বর্তমানের সবচাইতে জনপ্রিয় মেসেজিং প্লাটফর্ম হোয়াটসঅ্যাপ আজ বেশিরভাগ মানুষের স্মার্টফোনেই জায়গা করে নিয়েছে। এই অ্যাপের ইউজারের সংখ্যা বর্তমানে প্রায় 2 বিলিয়ন। হোয়াটসঅ্যাপ মেটার অধীনে আসার পর অনেকগুলো নিয়ম জারি করেছে। নিয়মগুলো না মানলে অথবা আপনার সামান্য কয়েকটি ভুলের কারণে বন্ধ হয়ে যেতে আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট। তাই আপনার অ্যাকাউন্টকে সুরক্ষিত রাখতে ভুলেও করবেন না নিচের এই কাজগুলো।

WHATSAPP ACCOUNT ব্যান হতে পারে এই ৭ নিয়ম না মানলে
WHATSAPP ACCOUNT ব্যান হতে পারে এই ৭ নিয়ম না মানলে
  • ফেক অ্যাকাউন্ট

আপনি যদি একটি ডিভাইস দিয়ে একাধিক আইডি ওপেন করেন অথবা আপনি যদি অন্য কারোর নামে , অন্যের পরিচয়ে কোনো হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট খোলেন, তবে সংস্থা চাইলে যে কোনো সময়ে আপনার অ্যাকাউন্টকে ব্যান করে দিতে পারে। তাই সবসময় নিজের রিয়েল ইনফরমেশন দিয়ে আইডি খুলবেন তাহলেই

  • থার্ড পার্টি অ্যাপের ব্যবহার

আজকাল হোয়াটসঅ্যাপ এর মতো বেশ কয়েকটি থার্ড পার্টি অ্যাপ প্লে-স্টোরে দেখা যায়। এই সমস্ত অ্যাপ ব্যাবহারকারীদের অনেক আকর্ষণীয় ফিচার অফার করে। তাই হোয়াটসঅ্যাপ সংস্থার তরফ থেকে এজাতীয় Whatsapp Plus বা GB Whatsapp – র মতো অ্যাপকে “Unsupported Apps” হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। কেননা এই অ্যাপগুলি ইউজার এর সিকিউরিটিকে নষ্ট করতে পারে। তাই আপনি ও যদি এই থার্ড পার্টি অ্যাপ এর মধ্যে কোনো একটিকে ব্যবহার করেন। তাহলে আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট ব্যান হয়ে যেতে পারে।

  • বাল্ক মেসেজিং

আপনি যদি অপরিচিত কোন ব্যক্তিকে দীর্ঘদিন ধরে মেসেজ পাঠান, তাহলে হোয়াটসঅ্যাপ অথোরিটি আপনার মেসেজকে স্প্যাম হিসেবে ধরে নিবে এবং যে কোন সময় আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টকে ব্যান ও করে দিতে পারে।

  • ব্লক অ্যাকাউন্ট

যদি কোন কারণে আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট বারবার ব্লক করা হয়, তারপর ও যদি আপনি ওই অ্যাকাউন্ট রি-এক্টিভেট করেন, তাহলে ও কিন্তু অ্যাকাউন্ট ব্যান হবার সম্ভাবনা থাকে। তাই একাউন্ট ব্লক হয়, এমন কাজ করা থেকে বিরত থাকুন।

  • রিপোর্ট অ্যাকাউন্ট

রিপোর্ট অ্যাকাউন্ট এর কথা আমরা সবাই কমবেশি জানি। যদি আপনার কোনো ভুলের কারণে ইউজার আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টে রিপোর্ট করে দেয়, তাহলে কিন্তু হোয়াটসঅ্যাপ আপনার অ্যাকাউন্টকে টেম্পোরারি বা পার্মানেন্টভাবে ব্যান করে দিতে পারে। তাই সবসময় লিগ্যাল ভাবে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যাবহার করুন যেন কোন ইউজার আপনাকে রিপোর্ট করতে না পারে।

  • ভুয়ো লিঙ্ক

আপনি যদি কোনো ইলিগ্যাল লিঙ্ক বা ম্যালওয়্যার লিঙ্ক সেন্ড করেন , তাহলে ও কিন্তু আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট ব্যান হয়ে যাবে। তাই এখন থেকে সাবধান হোন এবং ভুলেও কাউকে ইলিগ্যাল কিছু পাঠাবেন না।

  • ঘৃণা বা উত্তেজনা ছড়াতে পারে এমন মেসেজ

মানুষের মধ্যে ঘৃণা বা উত্তেজনা ছড়াতে পারে এমন মেসেজ যদি কাউকে সেন্ড করেন তাহলে ও আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট ব্যান হয়ে যেতে পারে।

টিপস

  • অন্য কারোর পরিচয়ে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন।
  • অপরিচিত কোন ব্যক্তিকে রেস্পন্স না করা সত্ত্বেও দীর্ঘদিন যাবত মেসেজ করা থেকে বিরত থাকুন।
  • শুধু মাত্র আসল হোয়াটসঅ্যাপটি ব্যাবহার করুন। কোনো থার্ড পার্টি হোয়াটসঅ্যাপ ব্যাবহার করবেন না।
  • অবৈধ লিংক বা ম্যালওয়্যারে পাঠানো যাবে না।
  • কাউকে টার্গেট করে আক্রমণাত্মক বা হিংসাত্মক মেসেজ পাঠাবেন না।

এই নিয়মগুলো লঙ্ঘনকারীদের মধ্যে প্রায় ২০ লক্ষ ভারতীয়দের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ। তাই সাবধান থাকুন, এই কয়েকটি নিয়ম মেনে চলুন। আর নাহলে আপনিও পড়তে পারেন বিপাকে। যেকোনো সময় বন্ধ হয়ে যেতে পারে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট।

বিশ্বের এক স্থান থেকে অন্য স্থানে মেসেজ পাঠানোর অন্যতম একটি প্ল্যাটফর্ম হলো হোয়াটসঅ্যাপ। যার মাধ্যমে অতি সহজেই ফটো থেকে শুরু করে অডিও, ভিডিও ক্লিপ পাঠিয়ে দিতে পারি। তবে হোয়াটসঅ্যাপের ক্ষেত্রে বর্তমানে কিছু নিয়মের কড়াকড়ি করা হয়েছে। যা মেনে চললে আপনার একাউন্টটি ও থাকবে নিরাপদ।

আর

Leave a Reply

Back to top button